পিস লিলি (Peace lily) ফুলের চারা

0


৳ 450.00 ৳ 400.00

15 in stock

বিক্রেতার ফোন নম্বর (সকাল ১০টা থেকে বিকাল ৫টা):
01751924144
Free offer: এখানে আপনার কৃষি পণ্য বিক্রি করুণ
Published on: June 5, 2020
Item will be shipped in 3-5 business days
  Ask a Question   Chat Now

পিস লিলি এমন এক সুন্দর ইনডোর গাছ যে খুব অল্পেই খুশি থাকে। এগাছের জন্য না লাগে প্রখর সূর্যের আলো, না লাগে বেশি জল, না লাগে দামী সার। অথচ পিস লিলি গাছ দেখতে যেমন আকর্ষণীয়, কাজেও তেমন উপকারী। খুব কম যত্নেই একরাশ ঘন সবুজ পাতা নিয়ে দ্রুত বেড়ে ওঠে পিস লিলি। দৃষ্টিনন্দন সাদা ফুলের জন্য পিস লিলি গাছকে শান্তির দ্যোতক বলে মনে করা হয়।

পিস লিলি: উদ্ভিদ পরিচয়

পিস লিলি এক সপুষ্পক চিরসবুজ গাছ। এ গাছের আদিনিবাস সুদূর আমেরিকার নিরক্ষীয় বৃষ্টিবন। স্বভাবতই সেখানকার মতো উষ্ণ, আর্দ্র, আলোছায়া যুক্ত পরিবেশ পিস লিলির বড়ো প্রিয়। বাড়িতে রাখতে চাইলে পিস লিলি গাছকে এরকম পরিবেশই দিতে হবে। সাধারণত আমাদের দেশের জলবায়ুতে এ গাছ ভালো ভাবেই বেঁচে থাকে। ঠিকমতো বাড়লে টবের পিস লিলি ১৬-২৪ ইঞ্চি উঁচু হয়।

নামে পিস লিলি হলেও এ গাছ মোটেই লিলি জাতীয় গাছ নয়। পিস লিলির বৈজ্ঞানিক নাম Spathiphyllum। স্প্যাথিফাইলাম আসলে গাছেদের একটা গণ। এই গণের অন্তর্গত প্রায় ৫০ প্রজাতির পিস লিলি পৃথিবীতে দেখা যায়। প্রতিটা প্রজাতির মধ্যেও নানা ভ্যারাইটি আছে। পিস লিলির বেশ কিছু ভ্যারাইটি ইনডোর গাছ হিসেবে সারা বিশ্বে জনপ্রিয়।

পিস লিলির সৌন্দর্য

পিস লিলির সৌন্দর্যের উৎস এক রাশ ঘন সবুজ পাতা ও উজ্জ্বল সাদা ফুল। পাতাগুলো ৩-২৫ সেমি চওড়া এবং ১২-৬৫ সেমি লম্বা হয়। পিস লিলির ফুল উজ্জ্বল সাদা বা সাদাটে রঙের। সাদা পতাকার মতো দেখতে এই ফুলের জন্য পিস লিলি গাছকে শান্তির প্রতীক রূপে গণ্য করা হয়। সারা বছরই পিস লিলির ফুল ফুটতে পারে। পিস লিলি ফুল ফুটলে এক রকম মৃদু সুগন্ধ পাওয়া যায়।

অবশ্য পিস লিলির ফুল বলতে যেটাকে বোঝানো হয় সেটা আসলে ফুল নয়। সেটা আসলে ফুলকে ঘিরে থাকা ঢাকনার মতো এক ধরণের পরিবর্তিত পাতা। পিস লিলির আসল ফুলগুলো ছোটো ছোটো, একটা ডাঁটির ওপর ফোটে। ঐ ডাঁটিকে ঘিরে থাকা সাদা বা সাদাটে রঙের পরিবর্তিত পাতাই চলতি কথায় পিস লিলির ফুল হিসেবে পরিচিত।

পিস লিলি গাছ ও ফুল

পিস লিলির ফুল

পিস লিলির উপকারিতা

পিস লিলি খুব সুন্দর ঘর সাজানোর গাছ। এ গাছের একটা বড়ো সুবিধা হলো এর জন্য বেশি পরিচর্যা লাগে না। পিস লিলি গাছ ঘরের বায়ু শোধনে দারুণ কার্যকর। আমাদের দেশের জলবায়ুর পক্ষে উপযোগী সেরা দশটা বায়ু শোধক ইনডোর গাছকে বেছে নিতে বললে তার মধ্যে পিস লিলি অবশ্যই থাকবে। এই গাছ এক রাশ চওড়া পাতার সাহায্যে ঘরের বাতাস থেকে নানা রকম বিষাক্ত উদ্বায়ী যৌগ শোষণ করে নেয়। যেমন, ফরম্যালডিহাইড, বেনজিন, জাইলিন, ট্রাইক্লোরোইথেন, টলুইন, ইত্যাদি।

পিস লিলি: বংশবিস্তার ও গাছের যত্ন

পিস লিলির বংশবিস্তার সাধারণত রাইজোমের সাহায্যে করা হয়। গাছের গোড়ার দিক থেকে পিস লিলির নতুন চারা বেরোয়। এই চারা ছুরি দিয়ে মূল গাছ থেকে কেটে আলাদা করে অন্য জায়গায় পুঁতে দিলে নতুন গাছ তৈরি হয়। এছাড়া বীজ থেকেও পিস লিলির বংশবিস্তার করা যায়। পিস লিলি গাছের পরিচর্যার নিয়মগুলো সহজ। এক্ষেত্রে কয়েকটা বিষয় মনে রাখতে হবে।

➤ভালো জল নিকাশি ব্যবস্থা যুক্ত দোয়াঁশ বা বেলে-দোয়াঁশ মাটি পিস লিলি গাছের পক্ষে সবচেয়ে ভালো। এঁটেল মাটি এ গাছের জন্য ভালো নয়।

➤পিস লিলি গাছের মাটি তৈরির সময় অল্প পরিমানে জৈব সার মেশানো যেতে পারে। এছাড়া এ গাছে ঘন ঘন সার দেওয়ার দরকার হয়না। পিস লিলি গাছে কোনো রকম রাসায়নিক সার লাগে না।

➤পিস লিলি গাছের ক্ষেত্রে জলসেচ একটা গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। পিস লিলি শুকনো মাটি ভালোবাসে না। আবার বেশি জলেও পিস লিলির বিপদ, সেক্ষেত্রে গোড়া পচে গাছ মরে যেতে পারে। তাই পিস লিলি গাছে সর্বদা পরিমিত জল দেওয়া উচিত।

➤সাধারণত সপ্তাহে দুবার জল দিলেই টবের পিস লিলির পক্ষে যথেষ্ট। তবে পিস লিলি গাছে ধরাবাঁধা রুটিনে জল দেওয়ার চেয়ে গাছের মাটি পরীক্ষা করে জল দেওয়া ভালো। অর্থাৎ, চোখে দেখে ও আঙুলের ডগা দিয়ে অনুভব করে যখন বোঝা যাবে টবের মাটি প্রায় শুকিয়ে গেছে, তখন পিস লিলি গাছে জল দিতে হবে। গাছে জল দেবার সেরা সময় ভোরবেলা।

ট্যাপের জলে ক্লোরিন বা ফ্লুওরিন থাকলে সেই জল পিস লিলি গাছে দেওয়া ঠিক নয়। দিলে পাতা হলুদ হয়ে গাছ আস্তে আস্তে নষ্ট হয়ে যেতে পারে। যদি একান্তই এ ধরনের ট্যাপের জল পিস লিলি গাছে দিতে হয়, তবে তা অন্তত একদিন আগে বালতিতে তুলে রেখে তারপর ওপরের দিক থেকে দিতে হবে।

➤পিস লিলির পাতা বাতাসের ভাসমান ধুলো আকর্ষণ করে। তাই পাতাগুলোকে মাঝেমধ্যে স্প্রেয়ার দিয়ে বা জল ছিটিয়ে ধুয়ে দেওয়া ভালো। তাতে পাতাগুলো তরতাজা থাকবে ও ঝকঝকে দেখাবে। পিস লিলি গাছ বেশি আর্দ্রতা ভালোবাসে। তাই একটা জলের ট্রের ওপর পিস লিলির টব রাখতে পারলে আরো ভালো।

➤পিস লিলি ছায়ার গাছ। এই গাছ সরাসরি রোদে রাখা চলবে না। পরোক্ষ সূর্যালোক ও কৃত্তিম আলোই পিস লিলির জন্য যথেষ্ট। তা বলে আবার একে একেবারে অন্ধকারাচ্ছন্ন জায়গায় ফেলে রাখাও ঠিক নয়। সেক্ষেত্রে পিস লিলির বাড় ব্যাহত হবে ও ফুল ফুটবে না।

➤পিস লিলি গাছ বেশি ঝাঁকড়া হয়ে গেলে প্রুনিং বা ছাঁটাই করতেই হবে এমন কোনো বাধ্যবাধকতা নেই। তবে ফুল ফুটে শুকিয়ে যাওয়ার পর গাছের ঐ কান্ডটা কেটে দেওয়া যেতে পারে। পিস লিলির একটা কান্ডে একটাই ফুল ফোটে, ফুল ফুটে শুকিয়ে গেলে ওটা আর ভালো দেখায় না।

পিস লিলি গাছে রোগপোকার আক্রমণ কমই দেখা যায়। এ গাছকে উপযুক্ত মাটি, দরকার মতো জল ও আলো সহ সঠিক পরিবেশ দিতে পারলে এমনিতেই এর স্বাস্থ্য ভালো থাকে।

➤পিস লিলি গাছে অতিরিক্ত জল দিলে গোড়া-পচা রোগ হতে পারে। এ রোগ একবার হলে গাছকে বাঁচানো কঠিন। এ রোগ এড়ানোর উপায় হলো পিস লিলি গাছের গোড়ায় কখনো জল জমতে না দেওয়া।

➤পিস লিলি গাছের পাতা বাদামি হয়ে শুকিয়ে গেলে বুঝতে হবে গাছ দরকার মতো জল পাচ্ছে না অথবা খুব শুষ্ক পরিবেশে থাকতে বাধ্য হচ্ছে অথবা গাছে রোদের তাত বেশি লাগছে। রোগের কারণ বুঝে উপযুক্ত ব্যবস্থা নিলে গাছ দ্রুত সুস্থ হয়ে উঠবে।

➤অনেক দিন হয়ে যাওয়ার পরেও পিস লিলি গাছ ঠিকঠাক না বাড়লে বা তাতে ফুল না ফুটলে বুঝতে হবে গাছ দরকারের চেয়ে আলো কম পাচ্ছে। সেক্ষেত্রে টবের অবস্থান বদলে পিস লিলি গাছকে আরেকটু বেশি আলো দেবার ব্যবস্থা করতে হবে।

➤পিস লিলি গাছে ছত্রাক বা ব্যাকটেরিয়া ঘটিত রোগ সাধারণত দেখা যায়না। তবু যদি কখনো এ ধরণের রোগ হয়, রোগ মোকাবিলায় রাসায়নিক বিষ প্রয়োগ করার চেয়ে জৈব পদ্ধতি অবলম্বন করা ভালো। রোগ একেবারে প্রাথমিক পর্যায়ে ধরতে পারলে, আক্রান্ত অংশ কেটে বাদ দিয়েও রোগের বিস্তার থেকে গাছকে বাঁচানোর চেষ্টা করা যেতে পারে।

➤পিস লিলি গাছে স্কেল, মিলি বাগ বা অ্যাফিড জাতীয় পোকামাকড়ের আক্রমণ ঘটলে আক্রান্ত গাছটাকে প্রথমেই অন্যান্য গাছ থেকে আলাদা করে ফেলতে হবে। আক্রান্ত অংশ জল দিয়ে ধুয়ে ফেলা যেতে পারে। নিম তেল প্রয়োগ করেও সুফল পাওয়া যায়। আরেকটা পদ্ধতি হলো রাবিং অ্যালকোহল (আইসোপ্রোপাইল অ্যালকোহল)-এ তুলো ভিজিয়ে আক্রান্ত অংশটা সাবধানে মুছে পরিষ্কার করে ফেলা। রাবিং অ্যালকোহল ওষুধের দোকানে কিনতে পাওয়া যায়।

➤পিস লিলি গাছের যত্ন ও রোগ প্রতিরোধ সম্পর্কে ইউটিউবে অনেক বাংলা, হিন্দী ও ইংরাজি ভিডিও পাওয়া যায়। দরকার মতো এই ভিডিওগুলোর সাহায্য নেওয়া যেতে পারে। অবশ্য ইউটিউবের সব ভিডিও-ই সমান ভরসাযোগ্য নয়। তাই পিস লিলি গাছের যত্ন নেওয়ার ক্ষেত্রে নিজস্ব বিচার বুদ্ধি অবশ্যই প্রয়োগ করতে হবে।

টবে পিস লিলি গাছ রাখলে বছরে একবার টব ও মাটি বদলে দিতে হবে। বদলানোর সময় পিস লিলির নতুন টব পুরোনো টবের চেয়ে একটু বড়ো হওয়া দরকার। গাছের ঝাড় যদি খুব ঝাঁকড়া হয়ে যায়, এই সময় সেটাকে ভাগ করে আলাদা আলাদা টবেও লাগানো যেতে পারে।

No more offers for this product!

General Inquiries

There are no inquiries yet.

0
50 seed Seedling tray (Thin)
0
৳ 100.00 ৳ 70.00
30%
0
পি এইচ মিটার ( PH meter )
0
৳ 700.00
0
বায়োফ্লক ত্রিপল ট্যাংক (কোরিয়ান) ১০০০০ লিটার
0
৳ 11,800.00
0
Black Chilli Seeds (বারমাসি কালো মরিচ বীজ)
0
৳ 15.00 ৳ 11.25
25%
0
Red Lady Papaya Seeds (F1 Hybrid- 5 pcs)
0
৳ 50.00 ৳ 37.50
25%
0
Cabe Kopay Chili Seeds (15 Pcs)
0
৳ 50.00 ৳ 37.50
25%
0
Garden Tools, Gardening Tools, Lawn and Garden
0
৳ 300.00
2
হাইড্রোপনিক নিউট্রিশন সলিউশন
2
৳ 1,000.00
Change
Logo
Register New Account
Reset Password
Chat Now
Chat Now
Questions, doubts, issues? We're here to help you!
Connecting...
None of our operators are available at the moment. Please, try again later.
Our operators are busy. Please try again later
:
:
:
Have you got question? Write to us!
:
:
This chat session has ended
Was this conversation useful? Vote this chat session.
Good Bad