- 50%

নাগপুরি কমলা

0

নাগপুরি কমলা অনেক জাত রয়েছে এর মধ্যে একটি হল নাগপুরী কমলা। এটি মূলতঃ ভারতের মহারাষ্ট্রে নাগপুরে চাষ করা হয়। নাগপুরী কমলার জনপ্রিয়তার জন্য নাগপুরকে কমলার শহর হিসেবেই সবাই চিনে।

150.00৳ 

0 out of 5
বিঃ দ্রঃপণ্যের দামের সাথে ডেলিভারি চার্জ যোগ হতে পারে। বিক্রেতার ফোন নম্বর (10AM-5PM) :
01908597470
from 0 pcs.
150.00৳  150.00৳ 
Published on: February 5, 2022

  Ask a Question
SKU: c4ada4da3913 Category:

নাগপুরি কমলা চারার আকার ১.৫০ ফিট থেকে ৩ ফিট কমলার অনেক জাত রয়েছে এর মধ্যে একটি হল নাগপুরী কমলা। এটি মূলতঃ ভারতের মহারাষ্ট্রে নাগপুরে চাষ করা হয়। নাগপুরী কমলার জনপ্রিয়তার জন্য নাগপুরকে কমলার শহর হিসেবেই সবাই চিনে। বর্তমান এ এই কমলার চাষ শুধুমাত্র নাগপুরেই সীমাবদ্ধ নেই‌ বরং আমাদের দেশেও চাষ হচ্ছে।নাগপুরী কমলার জনপ্রিয়তার জন্য ভারতের নাগপুরকে কমলার শহর হিসেবেই সবাই চিনে। বর্তমানে এই কমলার চাষ শুধুমাত্র নাগপুরেই সীমাবদ্ধ নেই‌ বরং আমাদের দেশেও চাষ হচ্ছে। ছাদবাগানীদের জন্য আনন্দের সংবাদ হল নাগপুরী কমলা আপনার বাসার ছাদে ও চাষ করতে পারবেন। নাগপুরী কমলা খেতে খুবই সুস্বাদু ও মিষ্টি হয়। এর কোষগুলো রসালো হয়।

কমলাকে বলা হয় শতগুণে সমৃদ্ধ ফল। কমলা লেবু দেখতে যেমন চমৎকার এর পুষ্টিগুণও অনেক। গোলগাল আকৃতির এই ফলটি সবাই খেতে পছন্দ করেন। পুষ্টি বিশেষজ্ঞরা বলেন, কমলার কোয়া ও খোসা দুটোই পুষ্টিতে ভরপুর। তাই নিয়ম করে প্রতিদিন কমলা খাওয়া দরকার। কমলায় রয়েছে ভিটামিন-সি, ভিটামিন-এ, ফ্ল্যাভনয়েড, অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট, ক্যালসিয়াম, ম্যাগনেসিয়াম, পটাসিয়াম ও ডায়েটারি ফাইবার। কমলার রস অত্যন্ত পুষ্টিকর। বেশিরভাগ রোগে পথ্য হিসেবে এটি ব্যবহার হয়। একজন মানুষের প্রতিদিন যে পরিমাণ ভিটামিন-সি প্রয়োজন, তার প্রায় পুরোটাই একটি কমলায় পাওয়া যায়। মানবদেহে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বা ইমিউনিটি সিস্টেম মজবুত করে তুলতে কমলা দারুণ উপকারী।

শুধু কমলার কোয়াতেই নয়; এর খোসাতেও রয়েছে অনেক গুণ। যেমন, কমলার খোসা রূপচর্চায় অত্যন্ত উপকারী। স্কিনে ব্ল্যাকহেডস দূর করতে সহায়ক পাঁকা কমলার খোসা। তাছাড়া কমলার খোসা একেবারে প্রাকৃতিক উপায়ে দাঁতের হলদে ভাব দূর করে। তাই কমলার তাজা খোসা বেঁটে টুথপেস্টের মতো ব্যবহার করা যায়।নাগপুরী কমলার জনপ্রিয়তার জন্য ভারতের নাগপুরকে কমলার শহর হিসেবেই সবাই চিনে। বর্তমানে এই কমলার চাষ শুধুমাত্র নাগপুরেই সীমাবদ্ধ নেই‌ বরং আমাদের দেশেও চাষ হচ্ছে। ছাদবাগানীদের জন্য আনন্দের সংবাদ হল নাগপুরী কমলা আপনার বাসার ছাদে ও চাষ করতে পারবেন। নাগপুরী কমলা খেতে খুবই সুস্বাদু ও মিষ্টি হয়। এর কোষগুলো রসালো হয়। নাগপুরী কমলার কুঁড়ি বর্ষাকালে আসে। সেপ্টেম্বর থেকে ডিসেম্বর পর্যন্ত টকস্বাদের ফল পাওয়া যায়। মিস্টি ফল পেতে হলে জানুয়ারি পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হবে। বছরে দুইবার করে ফল দেয় নাগপুরী কমলা।

No more offers for this product!

General Inquiries

There are no inquiries yet.

Change
KrishiMela
Logo
Register New Account
Reset Password