সরিষার খৈল – Mustard Oil Cake (25 Kg)

0
  • তরল সার হিসাবেসরিষার খৈল এর দ্রবনগাছের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ ।
  • জৈব সারের ঘাটতি কমাতে বিশেষ ভুমিকা রাখে
  • গোলাপ সব বিভিন্ন ফুলগাছে অধিক ফুল হতে সাহায্য করে
  • মাটিতে খাদ্যের জোগান দেয় যা গাছের দ্রুত বৃদ্ধি ঘটায়
  • পাতা সবুজ ও শিকড় বৃদ্ধিতে সাহাজ্য করে।
  • তরল সার বা গুড়া করে উভয় ভাবে সহজেই ব্যাবয়ার করা যায়।

৳ 1,125.00

0 out of 5
বিক্রেতার ফোন নম্বর (সকাল ৯টা থেকে রাত ৯টা):
+8801777856856
Free offer: এখানে আপনার কৃষি পণ্য বিক্রি করুণ
Published on: July 23, 2020
  Ask a Question   Chat Now

সরিষার খৈলঃ

গাছের প্রয়োজনীয় ও প্রধান পুষ্টি উপাদানগুলোর মধ্যে অন্যতম হচ্ছে নাইট্রোজেন এবং ফসফেট। গাছের এই গুরুত্বপূর্ন
পুষ্টি উপাদানের যোগানের জন্য সরিষার খৈল দিয়ে তৈরী সার খুবই উৎকৃষ্ট মানের। সরিষার খৈল দিয়ে দুই ভাবে জৈব সার তৈরী করা যায়। তবে তরল আকারে তৈরী জৈব সার ব্যবহার সহজ এবং বেশ কার্যকরী। এই সার তৈরী করার উপায় এবং ব্যবহার প্রনালী নিয়ে আমার আজকের আয়োজন।
প্রয়োজনীয় উপকরণঃ
  • সরিষার খৈল
  • ঢাকনাসহ প্লাষ্টিকের বালতি
  • নাড়ানোর জন্য কাঠি
  • পানি
  • সামান্য ইউরিয়া সার (না দিলেও চলবে)
তৈরী পদ্ধতিঃ
এক কেজি তাজা সরিষার খৈল নিয়ে বড় চাকা ভেঙে ছোট টুকরা করে নিতে হবে। সরিষার খৈলগুলোকে বালতিতে নিয়ে তাতে ১০ লিটার পানি ও ১০ গ্রাম ইউরিয়া সার দিয়ে ভালোভাবে নাড়িয়ে বালতির ঢাকনা লাগিয়ে ছায়াযুক্ত ঠান্ডা স্থানে রেখে দিতে হবে। (ইউরিয়া সারটি সরিষার খৈলের পচন প্রকৃয়াকে ত্বরান্বিত করার জন্য ব্যবহার করা হয় যা ব্যবহার না করলেও চলে) বালতিটিকে লোকালয় থেকে একটু দুরে রাখাই ভালো। কারণ সরিষার খৈল যখন পচতে শুরু করবে তখন ঢাকনা খুললে গন্ধ ছড়াবে। প্রতিদিন নির্দিষ্ট সময়ে বালতির তরলটিকে নাড়ানি দিয়ে ভালোভাবে বেশ কিছুক্ষন নেড়ে আবার ঢাকনা লাগিয়ে রেখে দিতে হবে। প্রতিদিন না নাড়ালেও হয়। এভাবে ৫-৭ দিন রাখলেইতৈরী হয়ে যাবে আপনার সরিষার খৈলের তরল জৈব সার।
ব্যবহার পদ্ধতিঃ
তৈরীকৃত সরিষার খৈলের তরল জৈব সার ব্যবহারের জন্য প্রথমে বেশ ভালোভাবে নাড়িয়ে এক লিটার তরল সারের সাথে আরো ১০-১২ লিটার পানি যোগ করতে হবে। এবার মিশ্রনটি ভালো ভাবে নাড়িয়ে মিশিয়ে টবের মাটি ভিজিয়ে দিতে হবে। অনেক বেশি দিয়ে ভাষিয়ে দেয়ার প্রয়োজন নেই। মাটি ভালো ভাবে ভিজিয়ে দেয়াই যথেষ্ট। এভাবে ১৫-২০ দিন পর পর গাছের চাহিদা বুঝে সারটি প্রয়োগ করতে হবে। সারটি দেওয়ার দুই/তিন দিন পর টবের মাটি আলতো করে খুঁচিয়ে দেয়া ভালো। আরেকটি বিষয় সার দেয়ার কাজটি পরন্ত বিকালে করতে হবে। দুপুরের রোদে করা যাবেনা।
সংরক্ষনঃ
ব্যবহারের পর যদি তরল সার থেকে যায় তাহলে বালতির ঢাকনা লাগিয়ে রেখে দিতে হবে। তবে তিন মাসের বেশি সময় সংরক্ষন না করাই ভালো। এতে এসিডের মাত্রা বেড়ে গাছের ক্ষতি হবার সম্ভাবনা থাকে। সবচেয়ে ভালো হয় যাদি প্রয়োজনমত সার তৈরী করে একবারেই ব্যবহার করা যায়।
সতর্কিকরণঃ
সরিষার খৈল সার পানিতে ভেজা থাকার সময় ও ব্যাবহারের সময় প্রচুর দূর্গন্ধহতে পারে। তাই ব্যাবহারের পূর্বে এই বিষটি অবশ্যই স্মরণে রাখবেন।

User Reviews

0.0 out of 5
0
0
0
0
0
Write a review

There are no reviews yet.

Be the first to review “সরিষার খৈল – Mustard Oil Cake (25 Kg)”

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Store
Price
Details
0 out of 5
৳ 125.00

General Inquiries

There are no inquiries yet.

Change
Logo
Register New Account
Reset Password
Chat Now
Chat Now
Questions, doubts, issues? We're here to help you!
Connecting...
None of our operators are available at the moment. Please, try again later.
Our operators are busy. Please try again later
:
:
:
Have you got question? Write to us!
:
:
This chat session has ended
Was this conversation useful? Vote this chat session.
Good Bad